Breaking News
Home / এক্সলুসিভ / নতুন আ’ইনঃ পুরুষদের ন্যূনতম ২ টি বিয়ে, না করলে যাব’জ্জীবন জে’ল

নতুন আ’ইনঃ পুরুষদের ন্যূনতম ২ টি বিয়ে, না করলে যাব’জ্জীবন জে’ল

যখন বিয়ে হয়, তখন সেই বন্ধন সারা জীবন অটুট থাকবে—এমন ইচ্ছাই থাকে বর কিংবা বধূর। দম্পতি হিসেবে আমৃত্যু থেকেছেন দুজন দুজনার হয়ে, এমন উদাহরণই বেশি।

এরপরও স্ত্রী বা স্বামীবিয়োগ, বিবাহবিচ্ছেদ ইত্যাদি কারণে অনেকেই সিদ্ধান্ত নেন দ্বিতীয় বিয়ে করার। তবে বিয়ে তো একটি আইনি প্রক্রিয়া। দ্বিতীয় বিয়ে যদি করতেই হয়, তবে আইনগত দিকগুলো বুঝে নিতে হবে আগে।আরও কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে দ্বিতীয় বিয়ের আগে।

মুসলিম শরিয়াহ আইন অনুযায়ী একজন পুরুষ একসঙ্গে একাধিক স্ত্রী রাখতে পারেন। হিন্দুদের ক্ষেত্রে ধর্মীয় আইন অনুযায়ী যেকোনো সংখ্যক বিয়ে করার ক্ষেত্রে কোনো প্রতিবন্ধকতা নেই। হিন্দু ও ইসলাম—দুই ধর্মেই বহুবিবাহের অনুমতি রয়েছে শুধু পুরুষদের ক্ষেত্রে।

ব্যতিক্রম শুধু হিন্দু ও মুসলিম নারীদের ওপর প্রযোজ্য। তবে আইনানুগভাবে বিবাহবিচ্ছেদ করলে পুরুষ বা নারীর ক্ষেত্রে দ্বিতীয় বা একাধিক বিয়ে করতে কোনো বাধা নেই। কোনো কারণে জীবনের চক্রে আবার বিয়ে করার প্রয়োজন হলো। কিন্তু চাইলেই কি আপনি দ্বিতীয় বিয়ে করতে পারবেন?

উত্তর হচ্ছে, আইন অনুযায়ী এক স্ত্রী জীবিত থাকা অবস্থায় আরেকটি বিয়ে করা যাবে না। তবে কারও যদি স্ত্রী বর্তমান থাকাকালে আরেকটি বিয়ে করার প্রয়োজন হয়, তাহলে তাঁকে তাঁর বর্তমান স্ত্রী যে এলাকায় বসবাস করছেন, সেই এলাকার সালিসি পরিষদের কাছে আরেকটি বিয়ে করার অনুমতি চেয়ে আবেদন করতে হবে।

এ ক্ষেত্রে তাঁকে প্রস্তাবিত বিয়ের কারণ এবং এই বিয়েতে বর্তমান স্ত্রীর সম্মতি রয়েছে কি না, তা উল্লেখ করতে হবে। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বা পৌরসভার মেয়র দুই পক্ষের প্রতিনিধি নিয়ে সালিসি পরিষদ গঠন করে থাকেন। সালিসি পরিষদের লিখিত অনুমতি নিয়েই কেবল দ্বিতীয় বিয়ে করা যাবে।

সালিসি পরিষদে যদি বর্তমান স্ত্রী অনুমতি প্রদান না করেন, তাহলে কোনোভাবেই দ্বিতীয় বিয়ে করা যাবে না। আবার সালিসি পরিষদকেও নির্দিষ্ট কিছু বিষয় বিবেচনা করে দ্বিতীয় বিয়ের অনুমতি প্রদান করতে হবে। যেমন: ১. বর্তমান স্ত্রীর বন্ধ্যত্ব, ২. শারীরিক মারাত্মক দুর্বলতা,

৩. দাম্পত্যজীবন সম্পর্কিত শারীরিক অযোগ্যতা, ৪. মানসিকভাবে অসুস্থতা ইত্যাদি। কোনো কারণে যদি স্ত্রী পৃথক থাকতে চান বা আলাদা বসবাস করেন সে ক্ষেত্রেও স্ত্রীর অনুমতি নিতে হবে। তবে কোনো কারণে যদি স্ত্রী ঘরে আর না ফেরেন এবং দ্বিতীয়বার বিয়ে করার অনুমতিও প্রদান না করেন,

তাহলে আইনসম্মতভাবে তালাক কার্যকর করার পরই পুনরায় বিয়ে করতে হবে। আফ্রিকার ছোট্ট দেশ এরিত্রিয়ার সমস্ত পুরুষকে ন্যূনতম দু’টি বিবাহ করতেই হবে,যা আ’ইনে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে। যদি দেশের কোনো পুরুষ বা নারী এই সিদ্ধান্তে আপত্তি করে, তা হলে শা’স্তি হবে যা’বজ্জীবন জে’ল।

একে চন্দ্র, দুয়ে পক্ষ।এক্ষেত্রে প্রথম পক্ষ এবং দ্বিতীয় পক্ষ, দুটোই বা’ধ্যতামূলক।সমস্ত পুরুষকে ন্যূনতম দু’টি বিবাহ করতেই হবে,যা আ’ইনে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে। যদি দেশের কোনো পুরুষ বা নারী এই সিদ্ধান্তে আপত্তি করে, তা হলে শা’স্তি হবে যা’বজ্জীবন জে’ল। একে চন্দ্র, দুয়ে পক্ষ। এক্ষেত্রে প্রথম পক্ষ এবং দ্বিতীয় পক্ষ, দুটোই বা’ধ্যতামূলক।

এমনই আ’জব আ’ইনে সিলমোহর দিল আফ্রিকার ছোট্ট দেশ এরিত্রিয়ার সরকার। আরবিক দেশগুলির মধ্যে এরিত্রিয়াতেই শুধুমাত্র এমন আ’জব আ’ইন জারি করা হয়েছে। রীতিমতো ধ’র্মীয় আই’নের মাধ্যমে এই নির্দেশকে মান্যতা দিলেন গ্র্যান্ড মুফতি।সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, দেশে পুরুষের আকাল পড়েছে এর আগে দী’র্ঘদিন ইথিওপিয়ার সঙ্গে যু’দ্ধের কারণে অনেক পুরুষ হারিয়েছে এরিত্রিয়া।ক্রমশ পু’রুষশূন্য হয়ে পড়ছে এই দেশ।

Check Also

আমাকে নিতে পারা দেশের পু’রুষদের জন্য কঠিন: বাঁধন

এক সাক্ষাৎকারে বাঁধন তার ব্যক্তিগত জীবন প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘আমি আর আমার মেয়ে ভালো আছি। আর …

You cannot copy content of this page
error: Content is protected !!
Don`t copy text!